Breaking News

‘ঋণের বোঝা’ কমাতে তিন মাসের সন্তানকে বিক্রি করে দিলেন বাবা

করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে টাকার অভাবে তিন মাস বয়সী সন্তানকে মাত্র ৪৫ হাজার টাকায় বিক্রির ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে প্রশাসন শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে। শুক্রবার টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার নগদাশিমলা ইউনিয়নের সৈয়দপুর পূর্বপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

বিকাশ অ্যাপ ইন্সটল করলেই পাবেন  ১০০ টাকা বোনাস! Bkash App Download Link

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই গ্রামের দিনমজুর শাহ আলম ও রাবেয়া দম্পতির তিন ছেলে। শাহ আলমের উপার্জনে পাঁচজনের সংসার চলে না। এর মধ্যে করোনা পরিস্থিতির কারণে কয়েক মাস ধরে বেকার তিনি। সংসারে বেশ কিছু ঋণ আছে। পাওনাদাররা প্রতিদিনই তাগাদা দিচ্ছিল।

শাহ আলমের স্ত্রী রাবেয়া জানান, হতাশায় তার স্বামী মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছিল। ঋণ পরিশোধ ও সংসারে অভাবের কারণে ১৬ দিন আগে তিন মাস বয়সী সন্তান আলহাজকে বাইশকাইল গৈজারপাড়া গ্রামের সবুজ মিয়া ও স্বপ্না দম্পতির কাছে ৪৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন।

গোপালপুর থানার ওসি মোশাররফ হোসেন জানান, সবুজ ও স্বপ্না দম্পতি নিঃসন্তান। তারা শাহ আলম-রাবেয়া দম্পতির অনটনের সুযোগ নিয়ে টাকার বিনিময়ে শিশুটিকে কিনে নেন। আদালতের অনুমতি সাপেক্ষে দত্তক নেয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু তারা সেটা করেনি।

তিনি আরো জানান, উপজেলা প্রশাসন সবুজ মিয়ার বাড়ি থেকে শিশু আলহাজকে উদ্ধার করে মা রাবেয়া বেগমের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে। কেউ আগ্রহ প্রকাশ না করায় এবং মানবিক দিক বিবেচনায় থানায় কোনো মামলা হয়নি।

গোপালপুরের ইউএনও পারভেজ মল্লিক বলেন, ঘটনার নেপথ্যে দারিদ্র্য। পরিবারটিকে আর্থিক ও খাদ্য সহায়তাসহ সার্বিক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। রাবেয়া বেগমকে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে আয়া পদে চাকরির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি জানান, ওই শিশুর যাবতীয় ভরণ-পোষণ ও লেখাপড়ার দায়িত্ব নেবে জেলা প্রশাসন।

error: Content is protected !!