Breaking News

এটিএম না ভেঙেই ৯ দিনে ৪০ লাখ টাকা লুট

এটিএম বক্স ঠিকই রয়েছে। কোনো আঁচড়ের দাগ নেই। কিন্তু এটিএম মেশিনের ভেতর থেকে রহস্যজনকভাবে টাকা উধাও।  অন্তত দু’জায়গায় এমন ঘটনা ঘটেছে।

প্রাথমিকভাবে গোয়েন্দা পুলিশের ধারণা, কোনো সফটওয়্যার ব্যবহার করে টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু কী সেই সফটওয়্যার, তা নিয়েই সৃষ্টি হয়েছে রহস্য।

দু’টি এটিএম পরীক্ষা করেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। প্রাথমিকভাবে তারা পুলিশকে জানিয়েছেন, কোনো সফটওয়্যার ব্যবহার করে এই টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে।

গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মতে, এটিএমগুলোর পেছন দিক থেকে তার বেরিয়ে থাকতে দেখা গেছে। ওই তারের মাধ্যমেই সফটওয়্যার ব্যবহার করে পুরো টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে বলেই ধারণা গোয়েন্দাদের। এই ব্যাপারে নিশ্চিত হতে এটিএম দু’টির সিসিটিভির ফুটেজ পরীক্ষা করা হচ্ছে।

খবরে বলা হয়, ৯ দিন ধরে প্রায় ৪০ লাখ টাকা জালিয়াতি হয়েছে কলকাতা শহরে। কাশীপুর, নিউমার্কেট ও যাদবপুর এলাকার ৩টি এটিএম কাউন্টারে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

বিকাশ অ্যাপ ইন্সটল করলেই পাবেন  ১০০ টাকা বোনাস! Bkash App Download Link

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কলকাতার নিউমার্কেটের একটি এটিএম বুথ থেকে ১৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা, যাদবপুরের একটি এটিএম থেকে ১৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও কাশীপুরের একটি এটিএম থেকে ৭ লাখ টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নেমেছে গোয়েন্দারা। এর আগে কলকাতায় একাধিকবার এটিএম ভেঙে টাকা লুঠপাটের ঘটনা ঘটেছে। এটিএমে স্কিমার যন্ত্র বসিয়ে প্রচুর টাকা জালিয়াতি করেছে রোমানীয় জালিয়াতরা।

শুক্রবারও গড়িয়াহাটে এটিএম ভেঙে লুঠপাটের অভিযোগে একজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। কিন্তু কাশীপুর ও যাদবপুরে যা ঘটেছে, তা একেবারেই নতুন বলে দাবি পুলিশের। আরও একটি এটিএম থেকেও টাকা চুরির খবর এসেছে পুলিশের কাছে।

দক্ষিণ কলকাতার যাদবপুর এলাকার একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকে টাকা ভর্তি করতে এসে এটিএম খুলতেই ওই সংস্থার কর্মীরা দেখেন, ভেতর থেকে উধাও টাকা।

error: Content is protected !!