Breaking News

বিরিয়ানির দোকান থেকে উদ্ধার করা হল ১২ টি বেড়াল

খাসি মুরগির বিরিয়ানি তো সকলেই অনেক খেয়েছেন। আসুন এবার নেওয়া যাক একটু বেড়াল বিরিয়ানির মজা। আজ্ঞে হ্যাঁ! খাসি মুরগির নাম করে এতদিন কাস্টমারদের খাওয়ানো হচ্ছিল বেড়ালের বিরিয়ানি। কম দাম ও টেস্টের জন্য দোকানে ব্যাবসাও চলছিল রমরমা।

বিকাশ অ্যাপ ইন্সটল করলেই পাবেন  ১০০ টাকা বোনাস! Bkash App Download Link

কিছু জায়গাতে চালানো হয় লাগাতার তল্লাশি অভিযান। এই অভিযান চালানোর পরে উদ্ধার করা হয় ১২টি বেড়ালের মৃ’তদে’হ।ঘটনাটি বহুবার ঘটেছে। প্রথমবার বেড়ালের রহস্যময় ভাবে উধাও হয়ে যাওয়ার ব্যাপারটা ভালো চোখে দেখেনা স্থানিয় বাসিন্দারা।

একজন বাসিন্দা অ’ভিযোগ করে যে বিগত কয়েকদিন ধরে উধাও হয়ে যাচ্ছে তার প্রতিবেশির বেড়াল। এসব শুরু হয় ঐ এলাকা থেকে। ক্রমে ক্রমে এই বেড়াল উধাও হওয়ার ঘটনাটি বাড়তে থাকে। ফলে ত’দন্তে নামে পুলিশ। নেমে তারা জানতে পারে যে বেড়াল চুরি করছে অদিবাসিদের একাংশ।

বেশ কয়েকজনকে হেপাজতে নিয়ে জেরা করে পুলিশ। জেরা করাতে জানা যায় বেড়াল গুলিকে তারাই চু’রি করেছে। চু’রি করা বেড়াল গুলো কোথায় বিক্রি করা হচ্ছে এই ব্যাপারটা জানতে চাওয়াতে তাদের মধ্যে একজন নাম নেয় বিরিয়ানির বেশ কিছু দোকানের।

এই অভিযোগে গ্রে’ফতার করা হয় বেশ কয়েকজন অদিবাসিকে। ছোট থেকেই আমরা শুনে এসেছি। “আপ রুচি খানা, পর রুচি পরনা।” কিন্তু আপ রুচির সাথে সাথে সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাসটার ব্যাপারেও আমাদের খেয়াল রাখা উচিত। না হলে আমাদের আর পশুদের মধ্যে পার্থক্য কি রইল।

চেন্নাইতে পর পর সাত দিন পুলিশি অভিযানে বিরিয়ানির দোকান থেকে উদ্ধার করা হয় ১২ টি বেড়াল। চেন্নাই শহরের বেশ কিছু জায়গা যেমন পাল্লাভারাম, আবাদি, পুম্পেজিল, কান্নিকাপুরাম এবং আরো কিছু জায়গায় এমন ঘটনা ঘটেছে।

error: Content is protected !!